1. admin@agamirdorpon.com : admin :
  2. agamirdarpon@gmail.com : News admin :
পলাশবাড়ীতে ইউপি সদস্য মনিরের আতংকে এলাকাবাসী!
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১০:১৮ অপরাহ্ন
সংবাদ কর্মী নিয়োগ চলছে
দৈনিক আগামীর দর্পণে,দেশের প্রতিটি জেলা উপজেলা কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুরুষ মহিলা সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা সিভি পাঠান, agamirdarpon@gmail.com, ০১৯১৭-৬৬৫৪৫০
শিরোনাম :
দেশের বৃহত্তম কেন্দ্রীয় হ্যাচারি গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে হিলিতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি ও মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ বিক্রির অভিযোগে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা  জীবননগরে গণধর্ষণের স্বীকার গৃহবধূ। বাড়িতে ঢুকে গৃহবধূকে তুলে নিয়ে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ জীবননগর বাঁকায় মসজিদ কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে চার’জন আহত বিএনপি নেতা রাজা মিয়া গ্রেফতার সোনাইমুড়ীতে ভুমি দস্যু, সন্ত্রাসী, জালজালিয়াত চক্রের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীদের সংবাদ সম্মেলন ঝিনাইদহে হেব্বি গ্রুপ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে গাছের চারা বিতরণ ঝিনাইদহে বিএম সভা অনুষ্ঠিত নোয়াখালীতে পুলিশের উপস্থিতিতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা-ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ জীবননগর পুরাতন চাকলায় গৃহবধুর রহস্যজনক আত্মহত্যা স্বামী থানা হেফাজতে ঝিনাইদহে কোটা বিরোধীদের পদযাত্রা ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

পলাশবাড়ীতে ইউপি সদস্য মনিরের আতংকে এলাকাবাসী!

  • প্রকাশিত সময় : বুধবার, ১২ জুন, ২০২৪
  • ২৭ Time View

স্টাফ রিপোর্টার: দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলার পলাশবাড়ী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনির হোসেন। তার অপকর্মে আতঙ্কিত এলাকাবাসী। চুরি, ছিনতাই, সন্ত্রাসী হামলা, মিথ্যা মামলা সাজিয়ে টাকা আদায় ও ডলারিসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় মনিরের বিরুদ্ধে ২০টিরও অধিক মামলা রয়েছে।

সাম্প্রতিক একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটিতে দেখা যায়, মনির হোসেন তার তালাক প্রাপ্ত স্ত্রী মাহফুজাকে দিয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে কিভাবে টাকা আদায় করে। যদিও ভিডিওতে থাকা আরেক ব্যক্তির পরিচয় জানা যায়নি। কিন্তু ভিডিওটি করেছেন ও কথা বলছেন মনির হোসেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মনির হোসেন বেশ কয়েক বছর থেকেই এই অপকর্ম গুলোর সাথে জড়িত ছিলেন। ইউপি নির্বাচনের আগে মনির হোসেন সকল অপকর্ম প্রায় ছেড়ে দিয়েছিলেন কিন্তু কাউন্সিলর হওয়ার পরেই সে আবার অপকর্ম গুলো শুরু করে দেন। তার এই অপকর্মে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, মনির হোসেন তার স্ত্রীকে লোক দেখানো তালাক দিলেও, তার সেই স্ত্রীর সাথে এখনও অবৈধ সম্পর্ক রেখেছেন। মনির হোসেন তার স্ত্রীকে দিয়ে টিকটকের মাধ্যমে, প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিভিন্ন জায়গা থেকে মানুষ নিয়ে এসে তাদেরকে জিম্মি করে ভিডিও বানিয়ে টাকা আদায় করে এবং কেউ টাকা দিতে না পারলে মনির তার তালাক প্রাপ্ত স্ত্রীকে দিয়ে ধর্ষণ মামলা দেয়।

তাদের এই মিথ্যা ধর্ষণ মামলার শিকার শুধু বাইরের মানুষ নয়। তার নিজ এলাকাতেও দশ জনের অধিক মানুষ শিকার হয়েছে এবং অনেক পরিবারকে এই রকম মামলা দিয়ে একেবারে নিঃস্ব করে দিয়েছে। এখনও তার এলাকার অনেক মানুষ পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মামলার ভয়ে।

ঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে, স্থানীয়রা বলেন, “মনির হোসেন কে তিনি কি করেন? এটা যদি প্রশাসন তদন্ত করেন এবং তার বিষয় গুলো আমলে নেয়। তাহলে সকল সত্য সহজেই জনসম্মুখে আসবে। আর এতোকিছু জানার পরেও যদি প্রশাসন নিবর থাকে। তাহলে এলাকাবাসী হিসেবে আমাদের কষ্ট হলেও সহ্য করে যেতে হবে। আমাদের বুঝতে হবে মনির হোসেন অসীম ক্ষমতার অধিকারী। তাকে দাবিয়ে রাখার মতো কোনো আইন বাংলাদেশে নেই”।

অভিযোগের বিষয়ে স্থানীয়রা জানান, মনির হোসেন এর বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে গেলে, সে বাসায় এসে বা রাস্তায় দেখতে পেলে বিভিন্ন হুমকি দেয়। কিছুদিন পরে সে কোনো না কোনো ভাবে বাদীকেই ফাঁসিয়ে দেয়। এবং উল্টো মামলার ভয় দেখায়। নতুন করে অভিযোগ দেওয়ার কিছু নেই। তার বিরুদ্ধে যেগুলো মামলা ও অভিযোগ থানায় আছে। সেগুলো খতিয়ে দেখলে বা এলাকায় প্রশাসনের লোক আসলেই সব জানতে পারবে”।

মনিরের বিষয়ে জানার জন্য, ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাক আহাম্মদ সিদ্দিকী মানিকের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে, ফোনে যোগাযোগ সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে জানতে চাইলে, নির্বাহী অফিসার ফজলে এলাহী জানান, “অভিযোগ ও প্রমাণ পাওয়া গেলে উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের নিকট অপরাধের গভীরতা অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হবে”।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 agamirdorpon.com
Design & Developed By BD IT HOST