1. admin@agamirdorpon.com : admin :
  2. agamirdarpon@gmail.com : News admin :
বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করতে পারে। কারণ, ধারণা করা হচ্ছে সামনে পৃথিবীতে কোনো যুদ্ধ হলে তা হবে খাদ্য নিয়ে দেশে
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৪:২০ অপরাহ্ন
সংবাদ কর্মী নিয়োগ চলছে
দৈনিক আগামীর দর্পণে,দেশের প্রতিটি জেলা উপজেলা কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুরুষ মহিলা সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা সিভি পাঠান, agamirdarpon@gmail.com, ০১৯১৭-৬৬৫৪৫০
শিরোনাম :
চুয়াডাঙ্গায় ঈদকে সামনে রেখে অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা বেপরোয়া, টার্গেট গরু ব্যবসায়ীরা রাজধানী ঢাকার সাথে কোটচাঁদপুর সরাসরি ট্রেন চালু রাখার দাবীতে মানববন্ধন নতুন আলো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কতৃক আয়োজিত ফ্রি স্বাস্থ্য ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত । ১৯ দিন পর আবারো চুয়াডাঙ্গায় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা আলমডাঙ্গায় সারাবাংলা ৮৮-এর উদ্যোগে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ ঝিনাইদহে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় সুচনা নামক এক কিশোরীর মৃত্যু। বড় হয়ে ডাক্তার হতে চেয়ে ছিলো সূচনা । এমপি আনার হত্যাকান্ডে ধোয়াশা ? সীতাকুণ্ডে বর্জ্য শোধনাগার নির্মাণ বিষয়ক  মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত  জীবননগরের শিয়ালমারি হাট কে কেন্দ্র করে অজ্ঞান পার্টির সিরিজ হানা। অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে তিন লাখ টাকা খোয়ালেন সানোয়ার হোসেন চুয়াডাঙ্গায় ত্রিমুখী সংঘর্ষে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত, আহত ১

বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করতে পারে। কারণ, ধারণা করা হচ্ছে সামনে পৃথিবীতে কোনো যুদ্ধ হলে তা হবে খাদ্য নিয়ে দেশে

  • প্রকাশিত সময় : সোমবার, ৭ আগস্ট, ২০২৩
  • ৬৪ Time View

আগামীর দর্পণ

দেশে খাদ্য সংকট দেখা দিবে। ফলেএখনই আমাদের সচেতন হতে হবে। খাদ্য পণ্যের জন্য অন্য দেশের উপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে আত্মনির্ভরশীল হতে হবে। সরকার এই বিষয়টি অনুধাবন করে কৃষি পণ্য ও খাদ্য দ্রব্য উৎপাদনে জোর দিচ্ছে। এই কৃষি ও খাদ্য শস্যের নতুন জাত উদ্ভাবন ও উৎপাদন বৃদ্ধিতে গবেষণার ভূমিকা অপরিসীম।

এখানে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হলে গবেষণার মাধ্যমে নতুন নতুন জ্ঞান উৎপাদনের ক্ষেত্র তৈরি হবে যা কৃষি বিজ্ঞানের অগ্রগতিতে অগ্রগামী ভূমিকা রাখবে।

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের যেকোনো স্থানের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হওয়ায় দূরদূরান্ত থেকে শিক্ষার্থী ও গবেষকরা সহজেই আসতে পারবেন। এখানকার নিরিবিলি প্রাকৃতিক পরিবেশ শিক্ষা ও গবেষণা কাজের সহায়ক হিসেবে কাজ করবে।ফলে ভৌগলিক অবস্থানগত বিবেচনায় এটি একটি উপযুক্ত স্থান। এখানে জমি অধিগ্রহণ জটিলতা দেখা দিলে পার্শ্ববর্তী বৈঁচিতলা, জলিলপুর-নস্তি সড়কের পাশের মাঠ কিংবা মহেশপুর-নাটিমা সড়কের পাশে স্থান নির্বাচন করা যায়।

যেখান থেকে সহজেই দত্তনগর খামারে যাওয়া যাবে। কৃষি সংক্রান্ত পাঠদান ওগবেষণার পাশাপাশি এখানে আধুনিক বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা, কলা ও সামাজিক বিজ্ঞানের বিষয়াদি পড়ানো যেতে পারে। এছাড়াও জলবায়ু বিজ্ঞান,মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, সংস্কৃতি ও ধর্ম চর্চা, প্রতœতাত্ত্বিক নিদর্শন,প্রকৌশল ও মেডিকেল সাইন্স বিষয়ে বিভিন্ন ইনস্টিটিউট ও গবেষণাগার থাকতে

পারে। এক কথায় একটি মডেল বিশ্ববিদ্যালয় যাকে বলে। পৃথিবী এগিয়ে যাচ্ছে।দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলা বিশ্বের সঙ্গে চলতে হলে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যসূচি, বিষয় ও গবেষণাতে নতুনত্ব আনতে হবে। এর জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে হতে হবে আধুনিক। একটি আধুনিক স্মার্ট রাষ্ট্র বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সাথে তাল মিলিয়ে চলতে শিক্ষা, গবেষণার সঙ্গে সংস্কৃতিও মুক্তবুদ্ধি চর্চার কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে মহেশপুরে একটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হোক যা হবে সারা দেশের রোল মডেল। এইবিশ্ববিদ্যালয়ের নামকরণ মহেশপুরের কৃতি সন্তান বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের নামে করা উচিত বলে মনে করি। বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের নামে কেন বিশ্ববিদ্যালয়ের নামকরণ চাই? বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে ৩০ লক্ষ মানুষ শহীদ হয়েছিলেন। এর মধ্যে বঙ্গবন্ধু সরকার জাতির সাত শ্রেষ্ঠ

সন্তানকে ‘বীরশ্রেষ্ঠ’ খেতাবে ভূষিত করে যার মধ্যে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর

রহমান একজন। ১৯৫৩ সালে তিনি ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলায় জন্ম গ্রহণ করেন।

১৯৭১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে সেনাবাহিনীতে যোগ দেওয়ার পর মার্চে স্বাধীনতা

যুদ্ধ শুরু হলে হামিদুর রহমান বাংলাদেশেকে পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর হাত

থেকে মুক্ত করার লক্ষ্যে যুদ্ধে যোগ দেন। অক্টোবর মাসে তিনি সিলেটের

শ্রীমঙ্গল এলাকার ধলই সীমান্তে শহীদ হন। হামিদুর রহমান মহেশপুর তথা সারা

বাংলাদেশের গর্ব। তাঁর নামে নিজ গ্রামের নাম করণ করা হয়েছে। এছাড়াও তাঁর

নামে গ্রামে একটি সরকারি কলেজ ও প্রাথমিক বিদ্যালয়, কলেজ মাঠে নির্মাণ

করা হয়েছে বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী হামিদুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর ও

গ্রন্থাগার, ঝিনাইদহ জেলা শহরের স্টেডিয়াম, ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ের

অডিটোরিয়াম ও মহেশপুরে একটি সড়ক রয়েছে। বাংলাদেশে সাত জন বীরশ্রেষ্ঠ

থাকলেও কারো নামে কোনো বিশ্ববিদ্যালয় নেই।

বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মহেশপুরের সন্তান আবার এই মহেশপুর উপজেলাতেই

রয়েছে বৃহত্তম কৃষি খামার। যেখানকার ভৌগোলিক ও প্রাকৃতিক পরিবেশ

বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য উপযুক্ত। ফলে সরকার মহান মুক্তিযুদ্ধের

শ্রেষ্ঠ সন্তান বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের নামে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনকরে অনন্য নজির স্থাপন করবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। এর মাধ্যমে কৃষি,বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি চর্চার পথ যেমন সুগম হবে তেমনই এ অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ দিনের দাবি পূরণ হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 agamirdorpon.com
Design & Developed By BD IT HOST